পরীমণি ও অনাগত সন্তানকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাজের বার্তা

প্রকাশিত: ১০:৩৩ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০২২

ঢাকাই সিনেমার প্রতিবাদী চিত্রনায়িকা পরী মণি। সম্প্রতি আলোচনায় এসেছেন বিয়ে এবং সন্তানের মা হওয়ার খবরে। গত বছরের ১৭ অক্টোবর স্বপ্নের রাজপুত্র শরিফুল রাজকে বিয়ে করেছেন এই নায়িকা। শুধু তাই নয় দুজনের ঘর আলোকিত করে আসছে নতুন মানুষ। সোমবার ১০ জানুয়ারি দুপুরে প্রথমে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও পরবর্তীতে গণমাধ্যমের কাছে তারা উভয়ই এ খবর নিশ্চিত করেন।

মা হওয়া প্রসঙ্গে পরী বলেন, শারীরিক অবস্থা দেখে কয়েকদিন ধরেই বুঝতে পারছিলাম। দুপুরে ডাক্তারের কাছে গেলে ডাক্তার সন্তান হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। সন্তানের বাবা অভিনেতা শরিফুল রাজ। খবরটি পেয়ে আমরা দুজনই কেঁদে ফেলেছিলাম।

এদিকে বাবা হওয়ার খবরে পরীর স্বামী শরীফুল রাজ নতুন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বার্তা দিয়েছেন। ছবিসহ পরী ও তাদের অনাগত সন্তানকে নিয়ে সেই বার্তাটি হুবহু পাঠকের জন্য প্রকাশ করা হলো।

রাজ লেখেন, ‘অনেক অনেক অভিনন্দন প্রিয় জান! সর্বশক্তিমান আল্লাহ এই সুন্দর সন্তানের মাধ্যমে আমাদের আশীর্বাদ দান করেছেন। পরীকে একজন সাহসী নারী দাবি করে স্বামী রাজ লেখেন, তুমি এমন একজন সাহসী নারী, যিনি একজন চ্যাম্পিয়নের মতো ব্যথা সহ্য করেছ এবং আমি তোমার সাহসের প্রশংসা করি। আমাদের জীবনে একটি নতুন অধ্যায় শুরু হতে চলেছে। আমাদের সন্তানকে এই সুন্দর গ্রহে আনার জন্য তোমাকে অনেক ধন্যবাদ।’

তিনি আরও লেখেন, ‘একজন পুরুষের জন্য এর চেয়ে ভালো আনন্দ আর কিছু নেই। সন্তান ও স্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে রাজ আরও লেখেন, তোমাদের দুজনকেই জীবনের সেরাটা দেওয়ার জন্য আজ আমি শপথ নিচ্ছি। যদিও আমার একটিমাত্র হৃদয়, কিন্তু এটি এখন দুজনের মধ্যে সমানভাবে বিভক্ত মনে হয়!

আমাদের জীবনে এমন একটি আরাধ্য শিশু আনার জন্য তোমাকে সাধুবাদ! এটি আমার কাছে তোমার দেওয়া সেরা উপহার এবং আমি আজীবন তোমর কাছে কৃতজ্ঞ থাকব! পরীমণি,

তোমার জন্য সবসময়। শুভকামনা। আমার প্রিয় প্রজাপতি, বাবা হতে পেরে গর্বিত এবং তোমাকে নিয়ে গর্বিত। ভেতরে ভেতরে আমার হৃদয় ভালোবাসায় আত্মহারা।

উল্লেখ্য, গিয়াসউদ্দীন সেলিমের ছবি ‘গুণীন’ এর সেটে তারা প্রেমে পড়েন। তিন দিন আগে পরিচালককে মিষ্টি খাইয়ে বিয়ের খবর জানিয়েছেন পরীমণি। ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন গিয়াসউদ্দীন সেলিম নিজেই। ঐদিন দুপুরে ফেসবুকে পরীকে ধন্যবাদ জানান শরিফুল রাজ। তাতে তিনি লেখেন ধন্যবাদ পরী।