জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের উন্মুক্ত বৈঠক

প্রকাশিত: ৬:৪৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১, ২০২২

ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়ার সেনা মোতায়েনকে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্রের ডাকা জাতিসংঘের উন্মুক্ত বৈঠকে বিবাদে জড়িয়েছে ক্ষমতাধর দেশ দুটি।

মার্কিন দূত লিন্ডা থমাস গ্রিনফিল্ড বলেন, কয়েক দশকের মধ্যে ইউরোপ সবচেয়ে বড় সেনা সমাবেশ দেখেছে।

রাশিয়া অভিযোগ করেছে, রাশিয়ার বিষয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অযাচিত এবং অগ্রহণযোগ্য হস্তক্ষেপ করছে।

রাশিয়া যদি ইউক্রেনে আক্রমণ করে তাহলে আরও আরও নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্রুস বলেন, ক্রেমলিন ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের ওপর আরও বিস্তৃত পরিসরে নিষেধাজ্ঞা আরোপের আইন প্রস্তুত করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের এক কর্মকর্তা বলেন, ওয়াশিংটনের নিষেধাজ্ঞা মানে ক্রেমলিন ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি আন্তর্জাতিক আর্থিক ব্যবস্থা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে।

ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়া এক লাখ সৈন্য, ট্যাংক, আর্টিলারি ও মিসাইল মোতায়েন করছে।

সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত ভ্যাসিলি নেবেনজিয়া বলেন, রাশিয়া ইউক্রেনে সামরিক হামলার পরিকল্পনা করছে, এর কোনো প্রমাণ নেই এবং সেনা সমাবেশের বিষয়টিও জাতিসংঘ নিশ্চিত করতে পারেনি।

তিনি বলেন, রাশিয়া প্রায়ই তার নিজস্ব অঞ্চলে সেনা মোতায়েন করে এবং এটি যুক্তরাষ্ট্রের মাথা ঘামানোর বিষয় নয়।

জাতিসংঘের এই উন্মুক্ত অধিবেশনে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেছিল রাশিয়া কিন্তু ১০-২ ভোটে বাতিল হয়ে যায়।

সূত্র: বিবিসি